রবিবার ১৪ অগাস্ট ২০২২



” ইলিশ কাবাবে জামাই আদর” ১ম হল ইলিশ রেসিপি প্রতিযোগিতায়


আলোকিত সময় :
26.07.2022

সরোয়ার আমিন বাবু, বিশেষ প্রতিবেদক :

দেশে চলছে এখন ইলিশ মৌসুম। হাজারো ইলিশের মাঝে পদ্মার ইলিশ হলো স্বাদে গুনে অনন্য। রয়েছে স্বতন্ত্র কিছু বৈশিষ্ট্য। সেই পদ্মার ইলিশ রেসিপি নিয়ে চমৎকার একটি প্রদর্শনী হয়ে গেল চট্টগ্রাম জেলা শিল্পকলা একাডেমিতে। ২৪ জুলাই রবিবার বিকেলে অনুষ্ঠিত পদ্মা উৎসবে পদ্মা সেতুর চিত্রাংকন প্রতিযোগিতা, পদ্মার গান, পদ্মার কবিতা ও নৃত্যের পাশাপাশি সেই পদ্মার ইলিশ রেসিপি প্রদর্শনী বিমোহিত করল সবাইকে।

চট্টগ্রামের বেশ কয়েকজন রন্ধন শিল্পী তাঁদের বাসা থেকে ইলিশ মাছের বিভিন্ন রেসিপি রান্না করে এই প্রদর্শনীতে নিয়ে আসেন। প্রদর্শনীতে অংশ নেয়া রেসিপিগুলো নিয়ে হয় প্রতিযোগিতা। এই প্রদর্শনী সমন্বয় করেন বিশিষ্ট রন্ধন শিল্পী ও চট্টগ্রাম উইমেন চেম্বার অব কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রিজের পরিচালক রেবেকা নাছরিন। প্রতিযোগিতায় জুরী ছিলেন সেরা রাঁধুনি খেতাব প্রাপ্ত দেশের বিখ্যাত রন্ধন শিল্পী জোবাইদা আশরাফ। তিনি বলেন, পদ্মা উৎসবে এই ইলিশ রেসিপি প্রদর্শনী সত্যি অসাধারণ। বাংলাদেশের জাতীয় মাছ ইলিশ। কিন্তু স্বাদে গুনে পদ্মার ইলিশের রয়েছে আলাদা পরিচয়। বিদেশেও এই পদ্মার ইলিশের রয়েছে বেশ জনপ্রিয়তা। এর রয়েছে মন মাতানো সুগন্ধ। চট্টগ্রামের বেশ কয়েকজন গৃহিণী তাদের রান্না করা রেসিপিগুলো নিয়ে এসেছে। তাঁরা সবাই এত ভাল রান্না করতে পারে, দেখে খুবই ভাল লাগল। প্রতিটির স্বাদ ও স্মার্ট পরিবেশনা দেখে আমি মুগ্ধ। তিনি আরো বলেন, রন্ধন একটি শিল্প। তাই শিল্পকলার এই প্রাংগনে এই রন্ধন শিল্প যোগ করেছে নতুন মাত্রা। পদ্মা উৎসবে এই সুন্দর আইডিয়াটি যোগ করায় আমি ধন্যবাদ ও সাধুবাদ জানাই আয়োজক কমিউনিটি স্টুডিও ও গৌরী ললিতকলা একাডেমিকে। পদ্মার ইলিশ রেসিপি প্রদর্শনী ও প্রতিযোগিতায় সেরা রেসিপিগুলোকে ১ম, ২য় ও ৩য় স্থান নির্ধারণ করে পুরষ্কৃত করা হয়। তবে বিজয়ী ও অংশগ্রহণকারী সবাইকে গিফট বক্স দিয়ে সম্মানিত করা হয়। প্রতিযোগিতায় ১ম হন ফারজানা শরিফ। তার রেসিপির নাম ছিল ইলিশ কাবাবে জামাই আদর। ২য় আনোয়ারা রিনু। রেসিপি নাম নোনা ইলিশের পাতুরী। ৩য় হন রোকেয়া নাসরীন। রেসিপি নাম প্রেসার কুকারে ইলিশ ভাপা। ” ইলিশ কাবাবে জামাই আদর” নামকরণ কেন, জানতে চাইলে ১ম স্থান অধিকারী ফারহানা শরীফ বলেন, ইলিশ মাছ দিয়ে জামাই আদর ও আপ্যায়ন বাংলার একটি ঐতিহ্য। তাই আমি এমনভাবে কাবাবটি তৈরী করেছি যাতে জামাই আদরে নতুন মাত্রা পায়। সেই আপ্যায়নে যদি পদ্মার ইলিশ হয় তবে সেটা হবে স্বাদে, গন্ধে অনন্য।



এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি