রবিবার ১৪ অগাস্ট ২০২২



রপ্তানি আয় হয়েছে ৩ হাজার ৯৮৪ দশমিক ৮২ মিলিয়ন ডলার


আলোকিত সময় :
03.08.2022

আলোকিত সময় ডেস্ক :

প্রবাসী আয়ের (রেমিট্যান্স) পর দেশের রপ্তানি আয়েও বড় ধরনের উল্লম্ফন হয়েছে। ২০২২-২৩ অর্থবছরের প্রথম মাস জুলাইয়ে বাংলাদেশের রপ্তানি আয়ের লক্ষ্যমাত্রা ছিল ৩ হাজার ৯২০ মিলিয়ন ডলার। সেখানে রপ্তানি আয় হয়েছে ৩ হাজার ৯৮৪ দশমিক ৮২ মিলিয়ন ডলার। অর্থাৎ লক্ষ্যমাত্রার চেয়ে রপ্তানি আয় বেড়েছে। সেই হিসেবে ২০২১ সালের জুলাই মাসের তুলনায় ২০২২ সালের জুলাইয়ে ৫১ কোটি ১৩ লাখ ৯ হাজার ইউএস ডলার বেশি রপ্তানি আয় হয়েছে। যা শতাংশের হিসেবে ১৪ দশমিক ৭২ শতাংশ।

মঙ্গলবার (২ আগস্ট) রপ্তানি উন্নয়ন ব্যুরোর (ইপিবি) মাসিক পরিসংখ্যান প্রতিবেদন (হালনাগাদ) থেকে এ তথ্য জানা গেছে। প্রতিবেদনের তথ্য অনুযায়ী, রপ্তানি আয়ের এই প্রবৃদ্ধিতে বরাবরের মতোই অবদান বেশি রেখেছে তৈরি পোশাক পণ্য।জুলাই মাসে পোশাক পণ্যের রপ্তানি হয়েছে ৩৩৬ কোটি ৬৯ লাখ ১০ হাজার ডলারের। এ হিসেবে মোট রপ্তানির ৮৪ দশমিক ৪৯ শতাংশ পোশাক পণ্য। এ পণ্যটির রপ্তানি গত অর্থবছরের জুলাই মাসের তুলনায় ১৬ দশমিক ৬১ শতাংশ বেড়েছে। আলোচ্য সময়ে ওভেন পোশাক রপ্তানি বেড়েছে ২৩ দশমিক ১১ শতাংশ এবং নিওয়্যার ১১ দশমিক ৮০ শতাংশ।
রপ্তানিমুখী তৈরি পোশাক শিল্প মালিকদের সংগঠন বিজিএমইএর পরিচালক মো. মহিউদ্দিন রুবেল বলেন, বৈশ্বিক অর্থনৈতিক পরিস্থিতি এবং উৎপাদন খরচ বেড়ে যাওয়ার এই সময়ে অর্জিত রপ্তানি প্রবৃদ্ধি আমাদের শিল্পের স্থিতিস্থাপকতা দেখাচ্ছে। তবে এ খাতের শিল্পোদ্যোক্তারা উন্নত বিশ্বের অর্থনৈতিক মন্দার বিষয়ে সতর্ক আছে বলে তিনি উল্লেখ করেন।

গত ২০২১-২২ অর্থবছরে পণ্য রপ্তানি করে ৫২ দশমিক শূন্য আট বিলিয়ন ডলার আয় হয়েছিল, যা আগের অর্থবছরের (২০২০-২১) চেয়ে ৩৪ দশমিক ৩৮ শতাংশ বেশি আয় হয়েছিল। ২০২২-২৩ অর্থবছরে ৫৮ বিলিয়ন ডলারের রপ্তানি আয়ের লক্ষ্য ধরা হয়েছে। উল্লেখ্য, জুলাই মাসে রেমিট্যান্সও বেড়েছে ১২ শতাংশের বেশি। এই মাসে প্রবাসীরা ২.১০ বিলিয়ন (২১০ কোটি) ডলার পাঠিয়েছেন দেশে, যা ১৪ মাসের মধ্যে সবচেয়ে বেশি।



এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি