রবিবার ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২২
  • প্রচ্ছদ » আলোকিত জনপথ » পঞ্চগড়ে আইনজীবির হাতে শ্রমিক নেতা লাঞ্জিত : আড়াই ঘন্টা পর সড়ক অবরোধ প্রত্যাহার



পঞ্চগড়ে আইনজীবির হাতে শ্রমিক নেতা লাঞ্জিত : আড়াই ঘন্টা পর সড়ক অবরোধ প্রত্যাহার


আলোকিত সময় :
18.09.2022

ডিজার হোসেন বাদশা, পঞ্চগড় প্রতিনিধি:

পঞ্চগড়ে এক আইনজীবির হাতে মটর পরিবহণ শ্রমিক ইউনিয়নের নেতাকে লাঞ্জিত করার অভিযোগ উঠেছে। এর প্রতিবাদে সড়ক অবরোধ করে শ্রমিকরা। পরে প্রশাসনের আশ্বাসে প্রায় আড়াই ঘন্টা পর অবরোধ প্রত্যাহার করে তারা।

রোববার (১৮ সেপ্টেম্বর) বিকেল ৪টার সময় অবরোধ প্রত্যাহার করে শ্রমিকেরা। এর আগে দুপুর ১টা ৩০ মিনিটে পঞ্চগড় জেলা আদালত চত্বরে লাঞ্চিতের এ ঘটনা ঘটে। তাৎক্ষনিক বিষয়টি শ্রমিকদের মাঝে ছড়িয়ে পড়লে আদালতের মূল ফটক অবরোধ করে শ্রমিকেরা। একই সময় বাংলাবান্ধা- পঞ্চগড় মহাসড়ক অবরোধ করে শ্রমিকসহ সংগঠনের নেতাকর্মীরা।

শ্রমিক নেতারা অভিযোগ করেন, দুপুরে আদালতে কয়েকজন আটক শ্রমিকের জামিনের জন্য এ্যাডভোকেট আব্দুল কালাম আজাদ লিটনের কাছে মটর পরিবহণ শ্রমিক ইউনিয়ন ২৬৪ এর সাধারণ সম্পাদক আকবর আলী খান। এর মাঝে তাদের মাঝে কথার একফাঁকে বাক বিনন্ডা শুরু হয়। এক পর্যায়ে আইনজীবি লিটন শ্রমিক নেতা আকবর আলীকে লাঞ্জিত করে।

এদিকে শ্রমিক নেতারা অভিযুক্ত এ্যাডভোকেট আব্দুল কালাম আজাদকে দ্রুত গ্রেফতার করে আইনি ব্যবস্থা গ্রহণের দাবী জানান। পরে বিকেল ৪টার সময় অভিযুক্ত এ্যাডভোকেট আব্দুল কালাম আজাদ লিটন শ্রমিকদের কাছে ক্ষমা চাইলে তারা অবরোধ প্রত্যাহার করেন।

শ্রমিক ইউনিয়ন ২৬৪ এর যুগ্ন সাধারণ সম্পাদক আমজাদ হোসেন জানান, আমাদের নেতা আমাদের শ্রমিকদের ছাড়ানোর জন্য এ্যাডভোকেটের কাছে গেছে। কিন্তু তিনি আমাদের নেতাকে লাঞ্জিত করেছে। যার জন্য শ্রমিকেরা সড়ক অবরোধ করে।

২৬৪ এর সভাপতি আব্দুল লতিফ বলেন, আমাদের দাবী ছিল তার গ্রেফতার। যেহেতু নেতাসহ শ্রমিক ভাইদের কাছে তিনি ক্ষমা চেয়েছেন তাই আমরা সড়ক অবরোধ প্রত্যাহার করেছি।

এদিকে অভিযুক্ত এ্যাডভোকেট আব্দুল কালাম আজাদ লিটনের সাথে মোবাইল ফোনে যোগাযোগ করা হলে ফোনটি কেটে দেন।

পঞ্চগড় সদর উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান আমিরুল ইসলাম বলেন, একটি তুচ্ছ ঘটনায় শ্রমিকরা সড়ক অবরোধ করে। পরে উভয় পক্ষের সাথে সমঝোতা করা হলে অভিযুক্ত এ্যাডভোকেট ক্ষমা চাইলে শ্রমিক নেতারা সড়ক অবরোধ প্রত্যাহার করে নেন।



এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি