বুধবার ৭ ডিসেম্বর ২০২২
  • প্রচ্ছদ » আলোকিত জনপথ » চট্টগ্রামের চলমান উন্নয়নের স্বার্থে জেলা প্রশাসকের বিরুদ্ধে সকল ষড়যন্ত্র রুখে দিতে হবে



চট্টগ্রামের চলমান উন্নয়নের স্বার্থে জেলা প্রশাসকের বিরুদ্ধে সকল ষড়যন্ত্র রুখে দিতে হবে


আলোকিত সময় :
24.09.2022

নিজস্ব প্রতিবেদক:

চট্টগ্রাম জেলা প্রশাসকের বিরুদ্ধে অপপ্রচার ও সকল ষড়যন্ত্র হচ্ছে চট্টগ্রামের উন্নয়নের চলমান ধারাকে বাধাগ্রস্ত করতে আর অবৈধ দখলদার ও দুর্নীতিবাজরা এই চক্রান্ত করছেন বলে মন্তব্য করেছেন আয়োজিত এক মানববন্ধন ও সমাবেশে বক্তারা।
বৃহস্পতিবার  ২২ সেপ্টেম্বর বিকাল সাড়ে তিন টায় পাহাড় কাটা, ভূমিদস্যু, চট্টগ্রামের উন্নয়নে বাঁধা ও চক্রান্তের বিরুদ্ধে প্রেস ক্লাব প্রাঙ্গণে  সমাবেশ ও মানববন্ধন করেছে চট্টগ্রামে কর্মরত বেসরকারী উন্নয়ন সংগঠন সমূহ। অনুষ্ঠিত মাববন্ধন সমাবেশে সভাপতিত্ব করেন বেসরকারী উন্নয়ন সংস্থা ইলমা’র প্রধান নির্বাহী ও নারী নেত্রী জেসমিন সুলতানা পারু।
মানববন্ধন সমাবেশে বক্তারা বলেন, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের সুযোগ্য কন্যা মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে দেশ এখন উন্নয়নের মহাসড়কে। প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনায় অবৈধ দখলদারদের কবল থেকে সরকারী সম্পত্তি উদ্ধারসহ চট্টগ্রামের সার্বিক উন্নয়ন কর্মকান্ড বেগবান ও দৃশ্যমান করতে জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ মমিনুর রহমান নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছেন। চট্টগ্রামের  সীতাকুণ্ডে জঙ্গল সলিমপুরে ভূমিদস্যুদের অবৈধ দখলে থাকা প্রায় ৩ হাজার ১’শ একর জায়গা উদ্ধারসহ সেখানে বিভিন্ন সরকারী ও অন্যান্য স্থাপনা তৈরী করতে প্রশাসন যে মুহুর্তে উদ্যোগ নিয়েছেন ঠিক সে মুহুর্তে ভূমিদস্যু পাহাড়খেকো ও লুঠেরার দল চট্টগ্রামের উন্নয়ন বাঁধাগ্রস্ত করতে সৎ, দক্ষ ও যোগ্য জেলা প্রশাসক (ডিসি) মোহাম্মদ মমিনুর রহমানের বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র শুরু করেছে। স্বার্থান্বেষী কুচক্রীমহল জেলা প্রশাসকের বিরুদ্ধে মিথ্যাচার ও অপপ্রপ্রচার চালিয়ে তাঁকে চট্টগ্রাম থেকে বদলীর পাঁয়তারা করছে। বর্তমান ডিসিকে হারালে চট্টগ্রামের উন্নয়ন অবশ্যই বাঁধাপ্রাপ্ত হবে। চট্টগ্রামকে ধ্বংস হতে দেয়া যাবেনা। তাই চট্টগ্রামের চলমান উন্নয়নের স্বার্থে সর্বস্তরের জনগণকে সাথে নিয়ে ডিসি মোহাম্মদ মমিনুর রহমানের বিরুদ্ধে সকল ষড়যন্ত্র রুখে দিতে হবে। একইসাথে দেশের উন্নয়ন বিরোধৗ ভূমিদস্যু ও লুঠেরাদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা নিতে হবে।
বক্তারা আরও বলেন,এক শ্রেণির ভূমিদস্যুর দল পাহাড় কেটে বন ও গাছপালা  উজাড়ের মাধ্যমে প্রাকৃতিক পরিবেশ ধ্বংস করছে। রাতারাতি পাহাড় কেটে যারা অবৈধভাবে আবাসন তৈরী করছে কিংবা পাহাড় বিনষ্টের  ইন্ধন দিচ্ছে তাদের চিহ্নিত করে আইনের আওতায় আনতে হবে। পরিবেশের ভারসাম্য রক্ষায় বনভূমি ধ্বংস করতে দেয়া হবেনা। এ ব্যাপারে সবাইকে সজাগ থাকতে হবে।
বেসরকারী উন্নয়ন সংস্থা স্বপ্নীল ব্রাইট ফাউন্ডেশনের সমন্বয়ক মোহাম্মদ আলী সিকদারের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠিত প্রতিবাদ সমাবেশ ও মানববন্ধনে সংহতি প্রকাশ করে বক্তব্য রাখেন মহানগর যুবলীগ নেতা এম আর আজিম, সংবাদ সংস্থা এনএনবি’র চট্টগ্রাম প্রধান রনজিত কুমার শীল, অর্জন ফাউন্ডেশনের নির্বাহী পরিচালক সাবেক কাউন্সিলর আবিদা আজাদ, ব্রাইট বাংলাদেশ ফোরামের প্রধান নির্বাহী উৎপল বড়ুয়া, এডাব’র সহ-সভাপতি মোস্তফা কামাল যাত্রা, বিভাগীয় সসমন্বয়কারী মোহাম্মদ ফোরকান, আইএসডিএফ’র প্রতিনিধি মঞ্জুর আলী, প্রত্যাশী ফাউন্ডেশনের প্রতিনিধি নেছারুল ইসলাম নাজমুল, আলহাজ্ব শামসুল হক ফাউন্ডেশনের প্রতিনিধি মোঃ নাছির উদ্দিন, সিডিএফ’র প্রতিনিধি কোহিনুর বেগম, এসডিএফ’র প্রতিনিধি দীপা দাশ, ভিসি ডব্লিউএফ’র প্রতিনিধি মোহাম্মদ সাগর, প্রত্যাশী’র প্রতিনিধি বশির আহমদ মনি, অসহায় নারী সমিতির প্রতিনিধি মোঃ ওসমান গণি, সংসপ্তক’র প্রতিনিধি রফিকুল ইসলাম, কারিতাস’র প্রতিনিধি ওসমান গণি ও আইডিএফ’র প্রতিনিধি সুদর্শন বড়ুয়া। প্রতিবাদ সমাবেশ ও মানববন্ধন কর্মসূচীতে চট্টগ্রামে কর্মরত বেসরকারী উন্নয়ন সংগঠনসমূহের প্রতিনিধিরা অংশ নেন।


এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি