বুধবার ৭ ডিসেম্বর ২০২২



গভীর সমুদ্রে ঝড়ের কবলে পড়া ১১জেলে ভারত থেকে বাড়ি ফিরলেন


আলোকিত সময় :
12.11.2022

মুঃ মুজিবুর রহমান, বাউফল (পটুয়াখালী)প্রতিনিধিঃ

প্রায় তিন মাস পূর্বে গভীর সমুদ্রে মাছ ধরার সময় ঝড়ের কবলে পড়ে ট্রলার ডুবির ঘটনায় ভারতে আটকে থাকার পর গত বুধবার  ১১ জেলে বাড়ি ফিরেছেন।  প্রায় তিন মাস পর বাড়িতে ফিরে আসায় তাঁদের স্বজনদের মাঝে বইছে আনন্দের জোয়ার। মঙ্গলবার বিকেল ৩টার দিকে ওই ১১জন জেলে বেনাপোল স্থল বন্দর অতিক্রিম করে বাংলাদেশে আসেন। এর মধ্যে ৯জন পটুয়াখালীর বাউফলের চন্দ্রদ্বীপ ইউনিয়নের বাসিন্দা। বাকি দুইজনের একজন ভোলার লালমোহনের নাজিরপুর ও  আরেকজন বরিশালের মেহেন্দিগঞ্জের শ্রীপুর গ্রামের বাসিন্দা।
 ফেরত আসা  ১১জন জেলেরা হলেন- উপজেলার চন্দ্রদ্বীপ ইউনিয়নের  মো. বাবুল ব্যাপারী (৫০), একই ইউনিয়নের জসিম উদ্দিন বয়াতী(৪০),  আবুল মাতব্বর(৪৮), মো. সুমন(৩০), সোহরাব মাঝি(৩৭), সবুজ ব্যাপারী(৪৫), কামাল সরদার(৪০), কায়েস হাওলাদার,  ফিরোজ খলিফা (৪০), ভোলার লালমোহনের নাজিরপুরের  মোহতাহার (৪০) ও বরিশালের মেহেন্দিগঞ্জের শ্রীপুরের  করিম হোসেন(৩৫)।
 গত ১৭ আগস্ট চন্দ্রদ্বীপ ইউনিয়নের মো. বাবুল ব্যাপারীসহ ১২জন জেলে  তাঁর (বাবুল ব্যাপারী)  এফবি সামিরা নামের ট্রলার নিয়ে গভীর সমুদ্রে মাছ ধরতে রওনা হয়। ১৯ আগস্ট আকস্মিক ঝড়ের কবলে পড়ে ট্রলারটি ডুবে যায়। জেলেরা বাঁশ ও প্লাস্টিকের পট ধরে ভাসতে থাকে। প্রচণ্ড ঝড়ে  জসিম হাওলাদার (২০) নামের এক জেলে সমুদ্রে  নিখোঁজ হয়ে যায়। তাঁর খোঁজ আজও মেলেনি। বাকি ১১ জেলে ১৭ঘন্টা সমুদ্রে ভেসে থাকার পরে ২০ আগস্ট  ভারতের তালপট্রি জঙ্গলে আশ্রয় নেয়। পরের দিন (২১ আগস্ট)  জোনাব মোল্লা নামের এক ভারতীয় জেলে তাদের উদ্ধার করে স্থানীয় হাসপাতালে চিকিৎসার ব্যবস্থা করেন। খবর পেয়ে ভারতীয় পুলিশ তাঁদের থানায় নিয়ে যায়।
 থানা থেকে জোনাব মোল্লা তাঁদেরকে নিজ জিম্মায় রাখেন। আইনী বেড়াজালের কারনে প্রায় তিন মাস তাঁদের ভারতে আটকে থাকতে হয়েছে। বাড়ি ফিরে আসা জেলে মো. বাবুল ব্যাপারী  সাংবাদিকদের বলেন,ঝড়ের কবলে আমাদের ট্রলার ডুবে যায়। পরে ভাসতে ভাসতে ভারতে প্রবেশ করি। আমরা কোনো অপরাধ করিনি।  তারপরেও আইনী প্রক্রিয়ার নামে  প্রায় তিন মাস আমাদের ভারতে আটকে থাকতে হয়েছে।
 এবিষয়ে উপজেলা নির্বাহী অফিসার (ইউএনও) আল-আমিন বলেন, জেলেদের দেশে ফিরিয়ে আনতে  স্থানীয় এমপি ও  জেলা প্রশাসক মহোদয় আন্তরিকতার সাথে চেষ্টা করেছেন। বিশেষ করে আপনাদের লেখনির মাধ্যমে  (সকল আইনী প্রক্রিয়া শেষে তাঁরা (জেলেরা) দেশে ফিরে এসেছেন।


এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি