বুধবার ৭ ডিসেম্বর ২০২২
  • প্রচ্ছদ » আলোকিত জনপথ » পতেঙ্গায় আসা পর্যটকদের নিরাপত্তা নিশ্চিতে পুলিশ বদ্ধপরিকর : ওসি পতেঙ্গা থানা



পতেঙ্গায় আসা পর্যটকদের নিরাপত্তা নিশ্চিতে পুলিশ বদ্ধপরিকর : ওসি পতেঙ্গা থানা


আলোকিত সময় :
14.11.2022

রাজু চৌধুরী, চট্টগ্রাম প্রতিবেদক :

আবাসিক হোটেল মালিক সমিতি পতেঙ্গা ইউনিটের সাথে মতবিনিময় সভা করেছে চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন পুলিশ’র পতেঙ্গা থানার কর্মকর্তারা।
এই পর্যটন এলাকায় ছিনতাই, ইভটিজিং, মাদক, জুয়া, ভাসমান পতিতা এবং বিভিন্ন সময় অসামাজিক কার্যকলাপের অভিযোগ পাওয়া যায়। এই অসামাজিক কার্যকলাপ প্রতিরোধে এবং নিরাপদ পর্যটন এলাকা হিসেবে পর্যটকদের নিরাপত্তা দিতে বিভিন্ন উদ্যোগ গ্রহণ করেছে পতেঙ্গা থানা পুলিশ।
গত রোববার ১৩ই নভেম্বর উক্ত মতবিনিময় সভায় সভাপতিত্ব করেন পতেঙ্গা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আবু জায়েদ মোহাম্মদ নাজমুন নূর, পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত ) থানার অপারেশন অফিসার এসআই জসিম উদ্দিন, চট্টগ্রাম আবাসিক হোটেল মালিক সমিতির সাধারণ সম্পাদক জনাব আবু বক্কর সিদ্দিক, হোটেল মালিক সমিতি পতেঙ্গা শাখার সভাপতি ও বি এস এল আবাসিক এর মালিক হুমায়ুন কবির, পিএফসি আবাসিক এর মালিক মোঃ হানিফ সিটিং এর মালিক মোঃ হেলাল উদ্দিন হোটেল ডায়মন্ডের মালিক মোঃ শামীম, হোটেল বীচ রিসোর্ট এর মালিক মোঃ শামীম সহ পতেঙ্গার বিভিন্ন হোটেল মালিকগণ মতবিনিময় সভায় অংশ গ্রহন করেন।
কোন হোটেলে মাদক, নারী ও জুয়া সহ কোন অসামাজিক কার্যকলাপ না করার জন্য পতেঙ্গা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা নির্দেশনা দেন। হোটেলে আগত পর্যটকরা যাতে নিরাপত্তা হীনতায় না ভোগে সে ব্যাপারে যথাযথ নিরাপত্তা ব্যবস্থা রাখার ঐক্যমত পোষণ করেন। নিরাপত্তা নিয়ে কোন প্রকার সংশয় দেখা দিলে সঙ্গে সঙ্গে পুলিশের সহযোগিতা নেওয়ার বিষয়ও সকলে সম্মত হন। প্রতিটি হোটেলে সিসিটিভি ক্যামেরা সংযোজন করার জন্য হোটেল মালিকদের অনুরোধ জানানো হয়। বিস্তারিত তথ্যাদি ফোন নম্বর, জাতীয় পরিচয় পত্র নম্বর সহ হোটেল রেজিস্ট্রারে লিপিবদ্ধ করে তথ্যাদি প্রতিদিন ছায়া লিপি করে রাত দশটার মধ্যে থানায় প্রেরণ করার বিষয়ে সর্বসম্মতিভাবে সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়। সর্বোপরি হোটেল মালিকদের যেকোন প্রয়োজনে থানার সাথে সার্বক্ষণিক যোগাযোগ রাখার পরামর্শ দেওয়া হয়।
পতেঙ্গা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আবু জাহেদ মো. নাজমুন নুর বলেন, পতেঙ্গার চারপাশ একটি পর্যটন এলাকা। এখানে সমুদ্র সৈকত, বিমান বন্দর রয়েছে, টানেল উদ্বোধন হওয়ার পর সমুদ্র সৈকতে প্রতিদিন পর্যটকদের ভিড় বাড়বে। পতেঙ্গায় আসা দেশীয় এবং বিদেশি তথা দেশের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে মানুষ সমুদ্র সৈকত দেখতে আসেন, পরিবার পরিজন নিয়ে বেড়াতে আসেন। সকল পর্যটকদের নিরাপত্তা ব্যবস্থা করা আমাদের প্রশাসনিক দায়িত্ব ও কর্তব্য। সেই সাথে আবাসিক হোটেল মালিকদেরও সচেতনতা প্রয়োজন, তাই সচেতনতা বৃদ্ধিতে এবং যেকোনো ধরনের অসামাজিক কার্যকলাপ প্রতিরোধে আমরা মতবিনিময় সভার আয়োজন করেছি। এ ব্যাপারে সবাই এগিয়ে আসবেন এটাই প্রত্যাশা।



এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি