বুধবার ৭ ডিসেম্বর ২০২২
  • প্রচ্ছদ » আলোকিত জনপথ » বাকলিয়াবাসীর দুর্ভোগ লাগব করবে রসুলবাগ ড্রাইভারশন খালের উপর নির্মিত ব্রীজ উদ্বোধন



বাকলিয়াবাসীর দুর্ভোগ লাগব করবে রসুলবাগ ড্রাইভারশন খালের উপর নির্মিত ব্রীজ উদ্বোধন


আলোকিত সময় :
24.11.2022

রাজু চৌধুরী, চট্টগ্রাম প্রতিনিধি :

নগরের পশ্চিম বাকলিয়া রসুলবাগ আবাসিক এলাকায় ড্রাইভারশন খালের উপর ৪ কোটি ৭০ লক্ষ টাকা ব্যয়ে নির্মিত ব্রীজ উদ্বোধন করেন
চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশন (চসিক) মেয়র মো. রেজাউল করিম চৌধুরী।
বৃহস্পতিবার (২৪ নভেম্বর) সকালে ব্রীজ উদ্বোধনকালে তিনি বলেন, ড্রাইভারশন খালের উপর ব্রীজ নির্মাণের ফলে পশ্চিম বাকলিয়া রসুলবাগ আবাসিক এলাকাবাসীর দীর্ঘ দিনের আকাংঙ্খা পূরণ হলো।
উত্তর, দক্ষিণ ও পূর্ব বাকলিয়ার সাথে পশ্চিম বাকলিয়াবাসীর মধ্যে যোগযোগের সেতুবন্ধন স্থাপন করতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখবে বলেও তিনি অভিমত ব্যক্ত করেন।
এসময় উপস্থিত ছিলেন ওয়ার্ড কাউন্সিলর মো. শহিদুল আলম, জহর লাল হাজারী, সংরক্ষিত কাউন্সিলর শাহীন আক্তার রোজী, চসিক প্রধান প্রকৌশলী রফিকুল ইসলাম, অতিরিক্ত প্রধান প্রকৌশলী কামরুল ইসলাম, তত্ত্বাবধায়ক প্রকৌশলী আবু ছালেহ, মুনিরুল হুদা, নির্বাহী প্রকৌশলী ফরহাদুল আলম, আবু ছিদ্দিক, মির্জা ফজলুল কাদের, স্থানীয় আওয়ামী লীগ নেতা এ.এস.এম এয়াকুব, ইউনুছ কোম্পানী, মো. মুছা, আকবর আলী আকাশ, আব্দুল হাকিম মেম্বার, নছরুল্লাহ করিম চৌ. হারুনুর ইসলাম মামুন, শওকত ইমরান সুমন, মো. আনোয়ার মেম্বার, সুহৃদ বড়ুয়া, শাহেদুল ইসলাম, রাহুল দাশ, মিলটন, মো. ছবুর, ঠিকাদার শাহেদ সাকী ও এলাকার গন্যমান্য ব্যক্তিবর্গ।
চসিক মেয়র, জলাবদ্ধতা নিরসনে মেগা প্রকল্পের মাধ্যমে খাল খনন করতে গিয়ে যে অস্থায়ী বাঁধ নির্মাণ করা হয়েছে তা দ্রুততম সময়ের মধ্যে অপসারণ করার জন্য সংশ্লিষ্ট প্রতিষ্ঠানের প্রতি আহ্বান জানিয়ে বলেন, শুধু মেগা প্রকল্প বাস্তবায়ন করলেই হবে না এর পাশাপাশি জনগনকেও সচেতন হতে হবে। মেগা প্রকল্পে গৃহীত চলমান ৩৪টি খালের সাথে বাকী ২১টি খাল পূন: উদ্ধারে প্রকল্প গ্রহণ করা হয়েছে।
মেয়র বলেন, ৪ কোটি ৭০ লক্ষ টাকা ব্যয়ে পশ্চিম বাকলিয়া রসুলবাগ আবাসিক এলাকায় ড্রাইভারশন খালের উপর ৪০ ফুট বাই ২৬ ফুট ১টি ব্রীজ, ১টি কালভার্ট ও ওয়াকওয়ে সংস্কারসহ সৌন্দর্য্য বর্ধনের কাজ সম্পন্ন করা হয়।
আগামী ৪ ডিসেম্বর পলোগ্রাউন্ডে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার প্রতি কৃতজ্ঞতায় জানাতে জনসভায় উপস্থিত থাকার জন্য নগরবাসীর প্রতি আহ্বান জানান।
মেয়র চসিকের গৃহকর নিয়ে একটি কুচক্রি মহলের বিভ্রান্তি মুলক অপপ্রচারে কর্ণপাত না করে কর পুন: মূল্যায়নের  অসংগতি মনে করলে তা আপীল বোর্ডের মাধ্যমে সমাধান করে নিজেরদের বক্তব্য পেশের মাধ্যমে যথাযথভাবে কর ধার্য্য সিন্ধান্ত গ্রহণের অনুরোধ জানান। সে ক্ষেত্রেও নগরীর সম্মানিত কোন করদাতা অসন্তষ্ট হলে তা নিরসনের জন্য মেয়রের সাথে যোগযোগ করে সহনীয় কর ধার্য্যরে বিষয়টি সমাধান করে নেয়ার জন্য আহ্বান জানান।


এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি