মঙ্গলবার ২৫ জুন ২০২৪



সমরেশ মজুমদার চলে গেলেন


আলোকিত সময় :
08.05.2023

নিজস্ব প্রতিবেদক :

বাংলা ভাষার প্রখ্যাত কথাসাহিত্যিক সমরেশ মজুমদার আর নেই। সোমবার কলকাতার স্থানীয় সময় বিকেল ৫টা ৪৫ মিনিটে কলকাতার একটি হাসপাতালে শেষনিঃশ্বাস ত্যাগ করেন তিনি।

খবরটি নিশ্চিত করেছেন সমরেশ মজুমদারের বড় মেয়ে দোয়েল মজুমদার।

তিনি বলেন, ‌‘বাবা আর নেই। বিকেলে আমাদের ছেড়ে চলে গেছেন। গত দু’-তিন দিন তার অবস্থার অনেকটা উন্নতি ঘটে। আমরাও খুব আশাবাদী ছিলাম। কিন্তু আজ তার একটি মেজর কার্ডিয়াক অ্যাটাক হয়। সেখান থেকে আর প্রত্যাবর্তন হয়নি তার।’

দোয়েল মজুমদার আরো বলেন, ‘বাবার মরদেহ কাল সকালে শ্যামপুকুরের বাড়িতে কিছুক্ষণ রাখা হবে। এরপর সেখান থেকে বালিঘাটে নেওয়া হবে শেষকৃত্যের জন্য।’

উল্লেখ্য, ৭৯ বছর বয়সী এই সাহিত্যিকের শ্বাসনালিতে গভীর সংক্রমণ ছিল। এক যুগ ধরেই ক্রনিক অবস্ট্রাক্টিভ পালমোনারি ডিজিজ (সিওপিডি) সমস্যায় ভুগছিলেন তিনি।

তার রক্তে কার্বন ডাই-অক্সাইডের মাত্রাও বেড়ে গিয়েছিল। তাকে আইসিইউতে রাখা হয়েছিল। গত শনিবার তার শারীরিক অবস্থার উন্নতি ঘটে। ভ্যান্টিলেশন সাপোর্টও খুলে রাখা হয়।

১৯৪২ সালে উত্তরবঙ্গের গয়েরকাটায় জন্ম উত্তরাধিকার, কালপুরুষ, কালবেলা-সহ বেশ কিছু কালজয়ী উপন্যাসের লেখক সমরেশের। প্রাথমিক শিক্ষা জলপাইগুড়ি জিলা স্কুলে। ষাটের দশকের গোড়ায় তিনি কলকাতায় এসেছিলেন। ভর্তি হয়েছিলেন স্কটিশ চার্চ কলেজের বাংলা বিভাগের (সাম্মানিক) স্নাতক স্তরে । এর পর স্নাতকোত্তর ডিগ্রি অর্জন করেন কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে।

১৯৭৫ সালে ‘দেশ’ পত্রিকায় তাঁর প্রথম উপন্যাস ‘দৌড়’ প্রকাশিত হয়েছিল। অন্যান্য উল্লেখযোগ্য উপন্যাসের মধ্যে রয়েছে সাতকাহন, তেরো পার্বণ, স্বপ্নের বাজার, ভিক্টোরিয়ার বাগান, আট কুঠুরি নয় দরজা, অনুরাগ ইত্যাদি।

 



এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি