শুক্রবার ১২ এপ্রিল ২০২৪
  • প্রচ্ছদ » আলোকিত জনপথ » ঢাকায় পাহাড়ি ছাত্র পরিষদের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর র‌্যালি ও ছাত্র সমাবেশ অনুষ্ঠিত



ঢাকায় পাহাড়ি ছাত্র পরিষদের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর র‌্যালি ও ছাত্র সমাবেশ অনুষ্ঠিত


আলোকিত সময় :
20.05.2023

এস চাঙমা সত্যজিৎ,খাগড়াছড়ি প্রতিনিধিঃ

পার্বত্য চট্টগ্রামে নিষ্ঠুর দমন-পীড়ন ও হত্যাকাণ্ডের প্রতিবাদে ছাত্র সমাজকে গর্জে ওঠার আহ্বান জানিয়ে ঢাকায় পাহাড়ি ছাত্র পরিষদের ৩৪তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উপলক্ষে সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়েছে।

আজ শনিবার ২০ মে ২০২৩ সকাল ১১ টায় বৃহত্তর পার্বত্য চট্টগ্রাম পাহাড়ি ছাত্র পরিষদ (পিসিপি)’র ৩৪তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উপলক্ষে  সমাবেশের আগে এক র‌্যালি অনুষ্ঠিত হয়। র‌্যালিটি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শারিরীক শিক্ষা কেন্দ্র থেকে শুরু করে কেন্দ্রীয় শহীদ মিনার হয়ে ভিসি চত্ত্বর, কলা ভবন, মধুর ক্যান্টিন, সমাজবিজ্ঞান ভবন হয়ে রাজু ভাস্কর্যে গিয়ে এক ছাত্র সমাবেশে মিলিত হয়।

“পিসিপি’র গৌরবোজ্জ্বল সংগ্রামী চেতনা রাখবো সমুন্নত” এ শ্লোগানে এবং “পার্বত্য চট্টগ্রামে নিষ্ঠুর দমন-পীড়ন ও হত্যাকাণ্ডের প্রতিবাদে গর্জে ওঠো, এই আহ্বানে র‌্যালীর পরবর্তী অনুষ্ঠিত সমাবেশে পাহাড়ি ছাত্র পরিষদের কেন্দ্রীয় সভাপতি অঙ্কন চাকমার সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক অমল ত্রিপুরার সঞ্চালনায় বক্তব্য রাখেন জাতীয় মুক্তি কাউন্সিলের সম্পাদক ফয়জুল হাকিম, ইউনাইটেড ওয়ার্কার্স ডেমোক্রেটিক ফ্রন্টের সহ-সাধারণ সম্পাদক প্রমোদ জ্যোতি চাকমা, গণতান্ত্রিক যুব ফোরামের সাধারণ সম্পাদক জিকো ত্রিপুরা, হিল উইমেন্স ফেডারেশনের সভাপতি নীতি চাকমা।

সমাবেশে সংহতি জানিয়ে বক্তব্য রাখেন, সমাজতান্ত্রিক ছাত্র ফ্রন্টের সভাপতি মুক্তা বাড়ৈ, বিপ্লবী ছাত্র মৈত্রী সাধারণ সম্পাদক দীলিপ রায়, বাংলাদেশ ছাত্র ফেডারেশনের সাধারণ সম্পাদক সৈকত আরিফ, বিপ্লবী ছাত্র-যুব আন্দোলনের প্রচার ও প্রকাশনার সম্পাদক সোহবত শোভন। এছাড়াও সমাবেশে সংহতি জানিয়েছেন বাংলাদেশ ছাত্র ফেডারেশনের সভাপতি মিতু সরকার, গণতান্ত্রিক ছাত্র কাউন্সিলের সভাপতি ছায়েদুল হক নিশান, সমাজতান্ত্রিক ছাত্র ফ্রন্টের তথ্য প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক সাদেকুল ইসলাম সাদিক প্রমুখ। এতে স্বাগত বক্তব্য রাখেন পাহাড়ি ছাত্র পরিষদের কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক শুভাশীষ চাকমা।

সমাবেশে ফয়জুল হাকিম তাঁর বক্তব্যে বলেন, বাংলাদেশের আভ্যন্তরীণ রাজনীতিতে সাম্রাজ্যবাদের হস্তক্ষেপ তথা পুরো দক্ষিণ এশিয়ার রাজনীতিতে যে ভয়াবহ পরিস্থিতি বিরাজ করছে এই সময়ে পিসিপি’র প্রতিষ্ঠাবাষির্কী পালন করা খুবই গুরুত্বপূর্ণ। ইতিহাসের দিকে তাকালে দেখতে পাই তৎকালীন ছাত্র সমাজ পাকিস্তানের চাপিয়ে দেয়া উর্দু ভাষার আগ্রাসনের বিরুদ্ধে ১৪৪ ধারা ভঙ্গ করে, জীবনের আত্মহুতি দিয়ে ভাষা রক্ষার আন্দোলন সংগঠিত করেছে। এদেশের শ্রমিক-কৃষকসহ দেশের সাধারণ মানুষই ইতিহাসের নির্মাতা।

সভাপতির বক্তব্য অঙ্কন চাকমা বলেন, বাংলাদেশ স্বাধীনতার ৫০ বছর অতিক্রম করলেও সর্বজনীন, বিজ্ঞানভিত্তিক, বৈষম্যহীন ও গণতান্ত্রিক শিক্ষা ব্যবস্থা চালু করা হয়নি। দেশের শিক্ষা ব্যবস্থাকে দিন দিন সংকুচিত করা হয়েছে। বাণিজ্যিকীকরণের মাধ্যমে শিক্ষাকে একটি বাণিজ্যিক পণ্যে পরিণত করা হয়েছে।

তিনি আরও বলেন, পার্বত্য চট্টগ্রামে অধিকাংশ স্কুল-কলেজ সমূহের বিরাজ করছে চরম শিক্ষক সংকট। রয়েছে অবকাঠামোগত দূর্বলতা, প্রত্যন্ত অঞ্চলে ঝুঁকিপূর্ণ জরাজীর্ণ স্কুল ভবন ও স্কুল কলেজে ছাত্রাবাস ও কলেজ বাস চালু নেই। প্রাথমিক ও মাধ্যমিক স্তরে শিক্ষার্থীদের ঝরে পড়ার হার দিন দিন বৃদ্ধি পাচ্ছে। লক্ষ লক্ষ টাকা ঘুষ নিয়ে প্রাইমারী লেভেলে অযোগ্য-অদক্ষ শিক্ষক নিয়োগ দানের মাধ্যমে জেলা পরিষদ শিক্ষা ব্যবস্থাকে ধ্বংস করে দিচ্ছে।

 



এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি