শুক্রবার ২৩ ফেব্রুয়ারী ২০২৪



পানছড়িতে মাদরাসার প্রাচীর ভেঙে চলাচল বন্ধের দাবীতে মানববন্ধন


আলোকিত সময় :
19.06.2023

এস চাঙমা সত্যজিৎ,খাগড়াছড়ি প্রতিনিধিঃ

খাগড়াছড়ি পার্বত্য জেলার পানছড়ি উপজেলায় পানছড়ি ইসলামিয়া সিনিয়র মাদরাসার সীমানা প্রাচীর ভেঙে শ্রেণী কক্ষের সামনে দিয়ে চলাচল বন্ধের দাবীতে মানববন্ধন করেছে প্রতিষ্ঠানটির শিক্ষক ও ছাত্র ছাত্রীরা।

আজ ১৯ জুন ২০২৩ সোমবার সকাল ৯টায় পানছড়ি ইসলামিয়া সিনিয়র মাদ্রাসার গেইটের সামনে পানছড়ি খাগড়াছড়ি সড়কে এই মানব বন্ধন অনুষ্ঠিত হয়। এ সময় ছাত্রছাত্রীদের হাতে নানা ধরনের ফেস্টুন প্ল্যাকার্ড শোভা পায়। তাতে লিখা ছিলো “ রাস্তা থাকার পরও মাদরাসার উপর দিয়ে চলাচলের প্রতিকার চাই ” । “ শিক্ষার্থীদের নিরাপত্তার জন্য প্রাচীর চাই।”

পানছড়ি সিনিয়র মাদরাসার ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ মাওলানা আবুল কাশেম জানান, প্রতিষ্ঠানটি দাখিল পর্যায়ে শুরু হলেও বর্তমানে আলিম শ্রেণীতে উন্নিত করণসহ অবকাঠামোগত উন্নয়ন হয়েছে। এলাকাবাসীদের যাতায়াতের কথা চিন্তা করে ভবন নির্মাণের মাদরাসার ক্রয়কৃত জমি থেকে পূর্বপাশ দিয়ে ৯ ফুট চওড়া রাস্তা রেখেই বাউন্ডারী ওয়াল করা হয়েছে। সেদিকের রাস্তা দিয়েই এলাকাবাসী যাতায়াত করেন। আংশিক সীমানা প্রাচীর না থাকায় সেদিক দিয়ে এলাকার কিছু উশৃঙ্খল লোক মাদরাসার অভ্যন্তরীন রাস্তা দিয়ে চলাচল করতো। এতে পাঠদানের সময়ে যাতায়াত করায় প্রাতিষ্ঠানিক শৃঙ্খলার ব্যাঘাত ঘটতো। কেন্দ্রস্থিত প্রতিষ্ঠান হওয়ায় সরকারী নির্দেশনানুযায়ী সীমানা প্রাচীর আবশ্যক। সেই অসমাপ্ত আংশিক সীমানা প্রাচীর সরকারী অর্থে নির্মাণ করা হয়। নব নির্মিত সীমানা প্রাচীরটি উশৃঙ্খল লোকগুলোর দ্বারা জোর পুর্বক ভেঙ্গে ফেলে দিয়েছে। তাই প্রতিষ্ঠানের পক্ষ থেকে আইনের আশ্রয় নেওয়া হয়েছে।

স্থানীয় বাসিন্দা আব্দুল কাদের , মোঃ সেলিম হোসেন জানান, আমরা প্রায় ৪০ বছর ধরে মাদ্রাসার পেছন দিয়ে এলাকার মানুষজন চলাচল করে আসছে । আমরাও এই রাস্তা দিয়ে জন্মের পর থেকে চলাচল করে আসছি। মাদ্রাসা কর্তৃপক্ষ আমাদের মিথ্যা মামলা দিয়ে হয়রানি করছে।

মাদরাসা পরিচালনা কমিটির সভাপতি ও পানছড়ি উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আব্দুল মোমিন জানান, মাদরাসার ক্রয়কৃত ভুমি থেকে আগে থেকেই এলাকাবাসীদের চলাচলের জন্য পূর্বপাশে ৮/৯ ফুট রাস্তা রেখে দিয়েছে , সেখানে প্রতিষ্ঠানের ভিতর দিয়ে চলাচলের প্রশ্নই আসে না। ইতিপুবে মাদরাসার পিছনে বসবাসকারী চার পরিবার বিএনপি জামাতের সাথে মিলে নানা অপতৎপরতা চালিয়েছে। সেখানে একটা প্রতিষ্ঠান সুরক্ষায় যা করা প্রয়োজন তাই করতে হবে। সরকারী কাজে বাধা ও মাদরাসার দেয়াল ভেঙ্গে তারা অপরাধ করেছে। এখনো তারা প্রতিষ্ঠানটির সুনাম নষ্ট করতে বিভিন্ন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে নানা অপ্রচার চালাচ্ছে।

উল্ল্যেখ্য, প্রতিষ্ঠানের নিরাপত্তার দিক বিবেচনা করে গত ৫ জুন ২০২৩ অসমাপ্ত আংশিক সীমানা প্রাচীর নির্মাণ করা হয়। পরবর্তী ৬ জুন মাদরাসার পিছনের কিছু লোক তা ভেঙ্গে দেয়। এবং রাস্তা চালু রাখার দাবিতে গত ১৫ জুন ২০২৩ বৃহস্পতিবার তারা মানববন্ধন করে।

 



এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি