মঙ্গলবার ২৫ জুন ২০২৪



বাঘায় ফেন্সিডিল মামলার আসামী করায় সন্দেহে পিতা পুত্রকে কুপিয়ে জখম


আলোকিত সময় :
20.06.2023

আব্দুল হামিদ মিঞা, বাঘা (রাজশাহী) প্রতিনিধি :

রাজশাহীর বাঘায় ফেন্সিডিল মামলার আসামী করায় সন্দেহে পিতা পুত্রকে কুপিয়ে জখম করা হয়েছে। সোমবার (১৯ জুন) সন্ধ্যায় উপজেলার পানিকামড়া বাজারে এই ঘটনা ঘটেছে। জানা যায়, ২০২১ সালে ৪ ডিসেম্বর পাকুড়িয়া গ্রামের কাইয়ুম আলীর সরকারের ছেলে জাহাঙ্গীর হোসেনকে র‌্যাব-৫ এর একটি অপারেশন দল ৪২০ বোতল ফেন্সিডিলসহ আটক করে। এই মামলায় পানিকামড়া বাজারের দক্ষিণপাড়া গ্রামের আবদুল মালেক হোসেনের ছেলে শাকিল হোসেনকে আসামী করা হয়। শাকিল হোসন দীর্ঘদিন পলাতক থাকায় পর প্রায় দেড় মাস আগে বাঘা থানার পুলিশ গ্রেফতার করে। তারপর থেকে শাকিলের পরিবার পানিকামড়া গ্রামের আমিরুল ইসলামকে সন্দেহে করে বিভিন্ন সময়ে হুমকি দিয়ে আসছিল। এক পর্যায়ে সোমবার সন্ধ্যায় ৬টার দিকে আমিরুল ইসলাম ও তার পিতা কামাল হোসেনকে পানিকামড়া বাজারে নাইম হোসেন, মকুল হোসেন, রাকিব হোসেন ও আবদুল মালেকসহ ধারালো হাসুয়া দিয়ে কুপিয়ে জখম করে। স্থানীয় এগিয়ে আসলে তারা পালিয়ে যায়। পরে আহত পিতা পুত্রকে উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে। এই ঘটনায় আমিরুল ইসলাম বাদি হয়ে নাইম হোসেন, মকুল হোসেন, রাকিব হোসেন ও আবদুল মালেকসহ ৪ জনকে আসামী করে মঙ্গলবার (২০ জুন) বাঘা থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করেন। বাঘা থানার ওসি তদন্ত আবদুল করিম বলেন, এ বিষয়ে একটি অভিযোগ পেয়েছি। তদন্ত করে আইনী ব্যবস্থা নেওয়া হবে।



এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি