শনিবার ১৩ এপ্রিল ২০২৪



রাঙামাটির বাঘাইছড়িতে জাতীয় ম্যালেরিয়া নির্মূল কর্মসূচী পালন


আলোকিত সময় :
20.06.2023

এস চাঙমা সত্যজিৎ, খাগড়াছড়ি প্রতিনিধিঃ

রাঙ্গামাটি পার্বত্য জেলার বাঘাইছড়ি উপজেলাতে উপজেলা স্বাস্থ্য বিভাগের স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স ও জাতীয় এনজিও ব্র‍্যাকের যৌথ উদ্যোগে জাতীয় ম্যালেরিয়া নির্মূল কর্মসূচী পালন করা হয়েছে।

গতকাল সোমবার ১৯ জুন ২০২৩ বাঘাইছড়ি উপজেলা পরিষদ সম্মেলন কক্ষে ম্যালেরিয়া নির্মূল কর্মসূচী বাস্তবায়নের লক্ষ্যে এক আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। ব্র‍্যাক এর বাঘাইছড়ি উপজেলা ব্যবস্থাপক সুদত্ত চাকমার সঞ্চালনায় সভায় সভাপতিত্ব করেন উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডাক্তার অরবিন্দু চাকমা। আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) রুমানা আক্তার। বিশেষ অতিথিদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান আব্দুল কাইয়ুম, সাগরিকা চাকমা, সহকারী কমিশনার (ভূমি) মোহাম্মদ মাহফুজুর রহমান, উপজেলা সমাজসেবা কর্মকর্তা জয়াস চাকমা, মৎস কর্মকর্তা নব আলো চাকমা, প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা (পিআইও) মোহাম্মদ আতাউর রহমান, উপ সহকারী কৃষি কর্মকর্তা তোফায়েল আহাম্মদ, বাঘাইছড়ি ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান অলিভ চাকমা, রূপকারী ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান জ্যাসমিন চাকমা, খেদারমারা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান বিল্টু চাকমা, মারিশ্যা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আপন চাকমাসহ উপজেলার বিভিন্ন দপ্তরের কর্মকর্তাগণ উপস্থিত ছিলেন।

সভার শুরুতে “ব্র‍্যাক” বাঘাইছড়ি উপজেলায় বিগত সময়ে ম্যালেরিয়া নির্মূলের জন্য কি কি কর্মসূচী পালন করেছে এবং বর্তমান সরকারের লক্ষ্য ২০৩০ সালের মধ্যে বাংলাদেশ থেকে ম্যালেরিয়া নির্মূল করার জন্য সে উদ্দেশ্যে কি কি পরিকল্পনা গ্রহণ করা হয়েছে এই বিষয়ে বিষদভাবে আলোচনা করেন ব্র‍্যাক উপজেলা ব্যবস্থাপক সুদত্ত চাকমা। এই বছর বাঘাইছড়ি উপজেলায় ইতিমধ্যে প্রায় এক (০১) লক্ষ কিটনাশক যুক্ত মশারী বিতরণ করা হয়েছে এবং আরও চাহিদা নেয়া হচ্ছে বলে জানান তিনি। উপজেলার ৮ ইউনিয়ন ও পৌরসভার প্রত্যন্ত অঞ্চলে মাঠ কর্মীদের মাধ্যমে মশারী পৌঁছে দেয়া হয়েছে। তিনি আরও বলেন, ব্র‍্যাক বাঘাইছড়ি শাখায় ম্যালেরিয়া পরীক্ষার কিট ও ঔষদের কোন ঘাটতি নেই। তাই ম্যালেরিয়া রোগীদের বিনামূল্যে ব্র‍্যাকের চিকিৎসা সেবা গ্রহণের জন্য অনুরোধ জানান।

আলোচনা সভায় বক্তারা বলেন, পার্বত্য চট্টগ্রামের সকল উপজেলায় এক সময় ম্যালেরিয়ার উপদ্রুত এলাকা ছিলো। এতে অনেক বেশি মানুষ মারা যেত ম্যালেরিয়ায় আক্রান্ত হয়ে। কিন্তু বর্তমানে ব্র‍্যাকের কিটনাশক যুক্ত মশারী ব্যবহার ও ম্যালেরিয়া চিকিৎসার ফলে এখন প্রায় ম্যালেরিয়া মুক্ত বলা যায়। তাই সবাই সচেতন হলে এই সংখ্যা শূণ্যতে নেমে আসবে বলে আশা করা হচ্ছে।

প্রধান অতিথি বাঘাইছড়ি উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ( ইউএনও) রুমানা আক্তার বলেন, বাংলাদেশ সরকারের লক্ষ্য ২০২৩ সালের মধ্যে ম্যালেরিয়া নির্মূল করা। , এই লক্ষ্য বাস্তবায়নের জন্য সরকারের পাশাপাশি ব্র‍্যাক গুরুত্বপূর্ণ অবদান রাখছে বলে তিনি তাঁর বক্তব্যে উল্লেখ করেন। তিনি আরও বলেন ব্র‍্যাকসহ যারাই ম্যালেরিয়া নির্মূলে কাজ করে যাচ্ছে তাদের সকলকে ধন্যবাদ জানিয়ে তিনি আরও বলেন সকলে সচেতন হলে ২০৩০ সালের মধ্যে দেশ থেকে ম্যালেরিয়া নির্মূল করা সম্ভব । আমি আশা করি, তার আগেই দেশ থেকে ম্যালেরিয়া নির্মূল করা হবে।

বাঘাইছড়ি উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডাক্তার অরবিন্দু চাকমা সভাপতির বক্তব্যে বলেন ২০৩০ সালের মধ্যে বাংলাদেশকে ম্যালেরিয়া মুক্ত দেশ ঘোষণা করার লক্ষ্যে আমরা কাজ করে যাচ্ছি এবং আমাদের পাশাপাশি কাজ করছে ব্র‍্যাক। তাই তিনি ব্র‍্যাকের কার্যক্রমের জন্য ধন্যবাদ জানান। ম্যালেরিয়া নির্মূল কার্যক্রমকে সফল করার জন্য জনপ্রতিনিধি, স্থানীয় গণ্যামান্য ব্যাক্তিদের জনসচেতনতা তৈরী করার জন্য এগিয়ে আসার আহবান জানান তিনি।

 



এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি